ভালো মা হওয়ার স্বপ্ন প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার

0
164

আজ শুক্রবার। আগামী শুক্রবার মুক্তি পাবে সোনালি বোস পরিচালিত ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া অভিনীত ছবি ‘দ্য স্কাই ইজ পিঙ্ক’। পুরোদমে চলছে ছবির প্রচারণা। আর যে ছবিতে প্রিয়াঙ্কা আছেন, সেই ছবির প্রচারণা নিয়ে তো আলাদা করে ভাবার অবকাশ নেই।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এই ছবিতে আয়েশা চৌধুরীর মা। আর প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জানিয়েছেন, তিনি কেবল একজন অভিনয়শিল্পী হিসেবে নন, একজন মানুষ হিসেবেও এই ছবির সঙ্গে যুক্ত হতে চান। এই ছবির চিত্রনাট্য পড়ে তিনি নাকি তাঁর মা-বাবাকে বুঝতে পেরেছেন, তাঁদের আরও কাছে পৌঁছাতে পেরেছেন।

পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ৩৭ বছর বয়সী এই অভিনয়শিল্পী বলেন, ‘এই ছবির গল্প একজন সত্যিকারের মা-বাবাকে ঘিরে, যাঁরা জীবনের ভয়ংকর সময়কে শক্তভাবে মোকাবিলা করেছেন। কোনো অশুভ স্রোতই তাঁদের ভাসিয়ে নিয়ে যেতে পারেনি।’

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জানান, এই ছবিতে অভিনয় না করলে তিনি হয়তো ভালো মা হতেন। তবে এই ছবিতে অভিনয়ের ফলে তিনি আরও ভালো মা হবেন। কারণ, এই ছবির অভিজ্ঞতা থেকে তিনি শিখেছেন, সন্তানকে তিনি একটা বড় জীবন দেবেন। এরপর প্রিয়াঙ্কা জানান, তিনি এই ছবির ওপর বিশ্বাস রাখেন। এই ছবির আরও দায়িত্ব তিনি নিজের কাঁধে নিতে চেয়েছিলেন। তাই এই ছবির অন্যতম প্রযোজকও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।এই ছবি দিল্লির মেয়ে আয়েশা চৌধুরীর ওপর নির্মিত। মাত্র ১৩ বছর বয়সে পালমোনারি ফাইব্রোসিস রোগে আক্রান্ত হয়েছিল মেয়েটি। ফুসফুসের দুরারোগ্য এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তি তিন থেকে পাঁচ বছর বাঁচে। কিন্তু আয়েশা চৌধুরী এই রোগের সঙ্গে লড়াই করেছেন ছয় বছর। এই সময়ে তিনি অসংখ্য হাল ছেড়ে দেওয়া মানুষকে বেঁচে থাকার অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন। ২০১৫ সালের ২৩ জানুয়ারি তাঁর আত্মজীবনীমূলক বই ‘মাই লিটল এপিফ্যানিজ’ প্রকাশিত হয়। আর তার পরদিন মারা যান তিনি।

এই ছবিতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া নাকি তাঁর মা মধু চোপড়ার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। কারণ, প্রিয়াঙ্কা সেটে বা বড় পর্দায় মায়ের অভিনয় করা শিখেছেন তো তাঁর মাকে দেখেই। আর প্রিয়াঙ্কার মতে, তাঁর জীবনের সবচেয়ে বড় ট্র্যাজেডি ২০১৩ সালে তাঁর বাবা অশোক চোপড়ার মৃত্যু।

প্রিয়াঙ্কা আয়েশার মা-বাবার সম্পর্কে বলেন, ‘আয়েশাকে তাঁর মা-বাবা যেভাবে অনুপ্রাণিত করেছেন, বেঁচে থাকার আশা জুগিয়েছেন, আমার মা-বাবাও সেটাই করেছেন। আমার স্বপ্নকে স্পর্শ করতে সব সময় তাঁরা আমার পাশে ছিলেন, নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছেন, যাতে আমি আমার জীবনকে উপভোগ করতে পারি। আজ আমি যা, তা আমার পরিবারের জন্যই।’

প্রিয়াঙ্কা ‘দ্য স্কাই ইজ পিঙ্ক’ ছবিতে আয়েশা চৌধুরীর মা। যিনি দুর্দান্ত এক মা আর মেয়ের সবচেয়ে কাছের বন্ধু। বড় পর্দায় মেয়ে আয়েশা হলেন জাইরা ওয়াসিম। মা হয়ে প্রিয়াঙ্কা বুঝেছেন, বিশেষ করে আজকের পৃথিবীতে পরিবারের সমর্থনের অপরিসীম গুরুত্ব।

মা মধু চোপড়ার সঙ্গে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার সম্পর্ক কেমন? প্রিয়াঙ্কা জানান, মা-ই নাকি তাঁর সবচেয়ে কাছের বন্ধু। তিনি বলেন, ‘আমরা একসঙ্গে পার্টি করি। ঘুরতে যাই। কেনাকাটা করি। আমার জীবনের সবকিছুর সঙ্গে একমাত্র মা জড়িয়ে আছেন। সব মিলিয়ে মা আমার জীবনের সবচেয়ে সেরা মানুষ। আমার মা আমার জীবনে যেমন ছিলেন, অদিতির (আয়েশা চৌধুরীর মা) ভূমিকায় অভিনয় করতে গিয়ে আমি কেবল সেটাই করেছি।’ প্রিয়াঙ্কা চোপড়া আরও জানান, একদিন তিনি অদিতির মতো মা হবেন।

অনেক দিন পর এই ছবি দিয়ে চেনা বলিউডে ফিরছেন ‘দেশি গার্ল’ প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ২০১৬ সালের পর থেকেই তিনি বলিউডে পা রেখেছেন খুব কমই। মার্কিন টিভি শো ‘কোয়ান্টিকো’র পর হলিউডের ছবি ‘বেওয়াচ’, ‘আ কিড লাইক জ্যাক’ ও ‘ইজন্ট ইট রোমান্টিক’-এ অভিনয় করেছেন। তাঁকে সর্বশেষ দেখা গেছে ২০১৬ সালে ‘জয় গঙ্গাজল’ ছবিতে। সেই ছবি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ার কারণেই হোক আর যে কারণেই হোক, এরপর ব্যাগ-বোঁচকা গুছিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে উড়াল দেন প্রিয়াঙ্কা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে