ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিততে চায় বাংলাদেশ,দেখুন বিস্তারিত …

0
182

অনূর্ধ্ব-১৮ সাফ ফুটবলে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ হলেই সুখস্মৃতি আপনাকে ফিরিয়ে নেবে ২০১৭ সালের এমনই এক সেপ্টেম্বরে। ভুটানের থিম্পুতে সেদিন প্রথমার্ধে ৩-০ গোলে পিছিয়ে পড়েও দ্বিতীয়ার্ধে ৪ গোল করে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল বাংলাদেশ। ভেন্যু বদলে নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে দুই বছর বাদে একই টুর্নামেন্টে ৫ দিনের ব্যবধানে আবারও বাংলাদেশ ও ভারত। এবার প্রতিবেশী দুই দেশের লড়াইটা শিরোপার জন্য। কাঠমান্ডুর আর্মড পুলিশ ফোর্স স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বেলা ২টা ৪৫ মিনিটে শুরু হবে খেলা।

আজকের ফাইনালের আগে গ্রুপ পর্বে মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। ম্যাচটি হয়েছিল গোলশূন্য ড্র। আজ ম্যাচের নিষ্পত্তি হবেই এবং জয়ী দলের হাতে উঠবে দক্ষিণ এশিয়ার যুব ফুটবলের শিরোপা। শেষ আসরে বাংলাদেশ হয়েছিল রানার্সআপ আর ভারত তৃতীয়।

বয়সভিত্তিক সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ টুর্নামেন্ট শুরু হয়েছে চার বছর আগে। ২০১৫ সালে প্রথম আসরে বাংলাদেশ হেরেছিল সেমিফাইনালে। ২০১৭ সালে দ্বিতীয় আসরে লিগ পর্বের টুর্নামেন্টে শিরোপার খুব কাছে গিয়েও রানার্সআপ হয়েছিল বাংলাদেশ। গতবার কোনো ফাইনাল হয়নি। কিন্তু নেপালের সঙ্গে সমান ৯ পয়েন্ট পেয়েও শুধু গ্রুপ পর্বে নেপালের কাছে হারের কারণে রানার্সআপ আপ হয় বাংলাদেশ। চ্যাম্পিয়ন হয় নেপাল। এবার বাংলাদেশের সামনে প্রথম সাফের শিরোপা জেতার হাতছানি।

শ্রীলঙ্কাকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছেন ইয়াসিন আরাফাতরা। এরপর ভারতের সঙ্গে ওই ড্র। সেমিফাইনালে ভুটানকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দেয় বাংলাদেশ। সবচেয়ে আশার কথা, এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের জালে কোনো বল ঢোকেনি। গোল খায়নি প্রতিপক্ষ ভারতও। বাংলাদেশের ফরোয়ার্ড লাইনে আছেন ফাহিম মোরশেদ, ফয়সাল আহমেদ ফাহিম, মারাজ হোসেনদের মতো গতিময় ফুটবলার। ভারতের বিপক্ষে আজকের ম্যাচে জয় ছাড়া কিছু ভাবছেনই না অধিনায়ক ইয়াছিন আরাফাত, ‘পুরো টুর্নামেন্টেই আমরা দুর্দান্ত খেলছি। কোচের নির্দেশনা সবাই ঠিকঠাকমতো পালন করছে। ফাইনালেও আমরা নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দিতে চাই। যেন চ্যাম্পিয়ন হয়ে দেশে ফিরতে পারি, এটাই আমাদের একমাত্র আশা।’

জিততে মরিয়া হলেও ভারতকে বেশ সমীহ করছেন বাংলাদেশের ব্রিটিশ কোচ অ্যান্ড্রু পিটার টার্নার, ‘এই ছেলেরা জয়ের জন্য ক্ষুধার্ত। আমি জানি ভারত শক্তিশালী দল। কিন্তু ওদেরকে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। আমাদের ছেলেরা পরিকল্পনামতোই খেলেছে প্রতিটি ম্যাচ। কালও (আজ) আশা করি সেটা মাঠে সঠিকভাবে পালন করবে। সেরাটা খেলতে পারলে আমরাই জিতব। আমাদের একটাই লক্ষ্য, ট্রফি জেতা।’

ট্রফিতে চোখ ভারতের কোচ ফ্লয়েড পিন্টোরও, ‘আমরা এখানে এক রকম ফুটবল খেলছি। বাংলাদেশ খেলছে অন্য রকম ফুটবল। তবে দুই দলই জানে, ফাইনালে তাদের প্রত্যাশাটা কী। আমি শুধু আমাদের ছেলেদের বলেছি, কোনো চাপ নিয়ো না। ফাইনালটা উপভোগ করো। নির্ভার হয়ে খেললে আমরাই জিতব।’

গত দুই আসরেরই চ্যাম্পিয়ন নেপাল। কিন্তু এবার সেই নেপাল গ্রুপ পর্বেই বিদায়। তাই বাংলাদেশ ও ভারতের দুই দলের সামনেই ইতিহাস গড়ার হাতছানি। শেষ পর্যন্ত আজ ফাহিম, ফয়সালরা দিনটা কি নিজেদের করে নিতে পারবেন?

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে